কোম্পানি প্রোফাইল

বাংলাদেশের টেলিকম ক্ষেত্রে প্রথম মার্জার হিসেবে রবি আজিয়াটা লিমিটেডের যাত্রা শুরু হলো। একীভূত কোম্পানি হিসেবে এটি ১৬ নভেম্বর ২০১৬ তারিখে কার্যক্রম শুরু করলো। এখন থেকে রবি ও এয়ারটেল কোম্পানি দু’টি একীভূত হয়ে রবি আজিয়াটা লিমিটেড হিসেবে পরিচিত হবে।

রবি আজিয়াটা লিমিটেড বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইল ফোন অপারেটর, এবং দেশে জিপিআরএস ও ৩.৫জি সেবার প্রথম অপারেটর। এই কোম্পানি দেশে প্রথমবারের মত বিভিন্ন ধরণের ডিজিটাল সেবা চালু করেছে। দেশের গ্রামীণ ও উপশহর অঞ্চলের সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর কাছে মোবাইল অথর্নীতিক সেবা পৌঁছে দেওয়ার জন্যে এই কোম্পানির বিনিয়োগ বিপুল।

এটি একটি জয়েন্ট ভেনচার প্রতিষ্ঠান, যেখানে অন্তর্ভূক্ত থাকছে মালয়েশিয়ার আজিয়াটা গ্রুপ বার্হাড, ইন্ডিয়ার ভারতী এয়ারটেল লিমিটেড ও জাপানের এনটিটি ডকোমো ইনকরপোরেটেড। এখানে আজিয়াটার থাকছে ৬৮.৭% শেয়ার, ভারতী এয়াটেলের ২৫% ও বাকি ৬.৩% শেয়ার এনটিটি ডকোমোর।

সফলভাবে মার্জার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পরে বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইল ফোন অপারেটর হিসেবে রবি’র উত্থান হলো। এর সক্রিয় গ্রাহকের সংখ্যা প্রায় ৩২.২ মিলিয়ন। এই একীভূত কোম্পানির নেটওয়ার্কের আওতায় থাকছে দেশের জনগোষ্ঠীর ৯৯ ভাগ। এর ১৩,৯০০ অন-এয়ার সাইটের মধ্যে ৮,০০০ সাইট ৩.৫জি সেবা দিচ্ছে।

এই কোম্পানি ১৯৯৭ সালে টেলিকম মালয়েশিয়া ইন্টারন্যাশনাল (বাংলাদেশ) হিসেবে যাত্রা শুরু করেছিল। তখন এর স্থানীয় ব্র্যান্ড নাম ছিল অ্যাকটেল। ২০১০ সনে এই কোম্পানি ‘রবি’ ব্র্যান্ড হিসেবে অভিহিত হয়, এবং প্রতিষ্ঠানটি রবি আজিয়াটা লিমিটেড নামে পরিচিত হয়।

এই কোম্পানি শক্তিশালী করপোরেট গাভারনেন্স ফ্রেমওয়ার্কের উপর প্রতিষ্ঠিত। এর কর্মীবৃন্দ ‘আমি পারি, আমি পারবো’ মনোভাব এবং অনড় ন্যায়নিষ্ঠতার ভিত্তিতে প্রতিটি বাধা অতিক্রম করে আসছে। এর সকল কার্যক্রমের কেন্দ্রবিন্দু হচ্ছে গ্রাহক।

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট টিমের গর্বিত স্পনসর হিসেবে রবি দেশের লাখ লাখ ক্রিকেট প্রেমীদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছে, যাতে তারা অদম্য আত্মশক্তিতে জাগিয়ে তুলে ব্যক্তিগত ও সামষ্ঠিক অর্জন ও উৎকর্ষতা সাধন করতে পারে। এই শক্তিশালী ব্র্যান্ড মেসেজের কারণে রবি দেশের উচ্চাকাঙ্খী মানুষের কাছে সমাদৃত। আর রবি মানুষের ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে মানসম্পন্ন মোবাইল টেলিকমিউনিকেশন সেবার মাধ্যমে তার খ্যাতিকে ধারণ করছে। 

দেশের পরিবর্তনশীল ডিজিটাল ক্ষেত্রে গ্রাহক কেন্দ্রিক ডাটা আর ডিজিটাল সেবার মাধ্যমে রবি নিজেকে নেতৃত্বের শিখরে দাঁড়া করিয়েছে। ডিজিটাল সেতু তৈরির প্রতিজ্ঞাকে সামনে রেখে এই কোম্পানি দেশে ফেসবুকের মৌলিক ইন্টারনেট প্ল্যাটফর্ম ফ্রি বেসিকসের সূচনা করেছে। এছাড়া, এটি যুবসমাজের মধ্যে ইন্টারনেটের দায়িত্বশীল ব্যবহারকে প্রসারিত করার লক্ষ্যে ‘ইন্টারনেফরইউ’ নামে একটি করপোরেট রেসপনসিবিলিটি উদ্যোগ হাতে নিয়েছে।

সকল গ্রাহক শ্রেণির জন্যে সেবা নিশ্চিত করে ও অব্যাহতভাবে অভিনবত্ব বজায় রেখে এই কোম্পানি তার প্রতিদ্বন্দ্বীদের থেকে এগিয়ে আছে। বাজারের সবচেয়ে বিস্তৃত আন্তর্জাতিক রোমিং সেবা প্রদান করে রবি গর্বিত। এর আওতায় আছে ১৪০টি দেশের ৩৮৫টি অপারেটর। অভিনব মূল্য সংযোজন সেবা (ভাস) এর মাধ্যমে রবি মানুষের অভিজ্ঞতাকে সমৃদ্ধ করেছে। বিনোদন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি অথবা জীবনের অন্যান্য অঙ্গনে রবি তার বিস্তৃতি ভাস সেবার মাধ্যমে সমাজে প্রত্যেকের চাহিদা পূরণ করছে।

বিডিঅ্যাপস (রবি’র জনপ্রিয় অ্যাপস্টোর) শুরুর দুই বছরের মধ্যে এটি এক হাজারের বেশি আকর্ষণীয় মোবাইল অ্যাপস সরবরাহ করছে, যেখান থেকে স্পোর্টস আপডেট, কুকিং রেসিপি, জবস/ক্যারিয়ার টিপ ও অ্যালার্ট, বিউটি টিপস্, সাধারণ জ্ঞান, ধর্ম, সংবাদপত্র, কৌতুক ইত্যাদি পাওয়া যায়। এই কোম্পানির জনপ্রিয় মিউজিক অ্যাপ রবি-ইয়োন্ডার প্রদান করছে সর্বাধিক স্থানীয় ও আন্তর্জাতি মিউজিক। শীর্ষস্থানীয় শিল্পীদের অংশগ্রহণে এই ডিজিটাল মিউজিক প্ল্যাটফর্ম ইতোমধ্যেই দেশের মিউজিক সৃজনশীলতার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে।

এর টিকেটিং প্ল্যাটফর্ম বিডিটিকেটস্ মানুষকে স্বস্তি এনে দিয়েছে। এখান থেকে বাস, লঞ্চ ও মুভির টিকেট কেনার সুযোগ রয়েছে। এছাড়া, ইউটিলিটি বিল পরিশোধ সেবার মাধ্যমে বাংলাদেশ পাওয়ার ডেভলপমেন্ট বোর্ডের গ্রাহকবৃন্দ ডিজিটাল উপায়ে তাদের মাসিক বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে পারছেন। 

রবি সামাজিকভাবে দায়বদ্ধ একটি ব্র্যান্ড। এটি আইসিটি শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও পরিবেশের ক্ষেত্রে কিছু করপোরেট রেসপনসিবিলিটি উদ্যোগ নিয়েছে, যেগুলোর উদ্দেশ্য হচ্ছে, দেশের স্থায়ী উন্নয়নে অবদান রাখা। দেশের সর্ববৃহৎ ডিজিটাল শিক্ষা প্ল্যাটফর্ম ১০ মিনিট স্কুল’এ এই কোম্পানি সহযোগিতা প্রদান করছে। এই ডিজিটাল স্কুলে বর্তমানে ১৭৯,০০০ জন ছাত্রছাত্রী নিবন্ধিত। সারা দেশ থেকে ৫৫,০০০ ছাত্রছাত্রী লাইভ ক্লাস গ্রুপের সক্রিয় সদস্য। ফেসবুক লাইভ ফিচারের মাধ্যমে এই সেবাটি প্রদান করা হচ্ছে। 

“গড়ি নিজের ভবিষ্যৎ” নামে আরেকটি উদ্যোগের মাধ্যমে রবি সুবিধাবঞ্চিত নারীপুরুষদের সাহায্য করছে যাতে তারা পোশাক শিল্পের জন্যে ইন্ডাস্ট্রিয়াল স্যুইং মেশিন অপারেশন, ইলেকট্রনিক্স ও মোবাইল সার্ভিসিং ইত্যাদি কারিগরি শিক্ষার মাধ্যমে নিজেদের ভবিষ্যৎ তৈরি করতে পারেন। 

রবি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে দেশের প্রথম ই-লাইব্রেরি স্থাপন করেছে। এর মাধ্যমে ৩৫টি বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রকাশকদের সাথে দেশের এই সর্ববৃহৎ বিশ্ববিদ্যালয় সংযুক্ত হয়েছে। এখান থেকে ছাত্র ও শিক্ষকবৃদ ই-বুক, সাইন্টিফিক জার্নাল ও গবেষণা পত্র দেখতে পারবেন।

এই কোম্পানি সম্প্রতি ডিজিটাল স্মার্ট বাস চালু করেছে। এটি হুয়াই ও বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি ডিভিশনের সাথে ৩ বছরের জন্যে পার্টনারশিপ প্রকল্প। এর আওতায় ৬টি বাস দেশের ৬৪টি জেলার ২৪০০০০ জন তরুণ ও মেধাবী নারীর মধ্যে মৌলিক আইসিটি প্রশিক্ষণ প্রদান করবে। এই কোম্পানি দেশের বিভাগীয় পাবলিক লাইব্রেরি ও বৃহত্তর আঞ্চলিক প্রেস ক্লাবগুলোতে ইন্টারনেট কর্নার স্থাপন করেছে, যেগুলো তথ্যভাণ্ডার হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। 

subscriber email